২০ ডলারের কমে পাওয়া যাবে রাশিয়ার তৈরী করোনা টিকা

অনলাইন ডেস্ক: রাশিয়ার তৈরি করোনাভাইরাসের টিকা ‘স্পুটনিক-৫’ আন্তর্জাতিক বাজারে ২০ ডলারের কমে পাওয়া যাবে বলে দাবি করেছে মস্কো। ২০২০ সালে এই টিকার ১ বিলিয়ন ডোজ তৈরি করবে দেশটি।
‘স্পুটনিক-৫’ এর টুইটারে বলা হয়েছে, করোনা প্রতিরোধে এই টিকা একজন ব্যক্তির শরীরে দুইবার ডোজ দিতে হবে। প্রতি ডোজে খরচ পড়বে ১০ ডলারের কম। তবে রাশিয়ার নাগরিকদের জন্য বিনামূল্যে টিকা সরবরাহ করা হবে।
মঙ্গলবার প্রকাশিত ‘স্পুটনিক-৫’ এর আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য অন্য কয়েকটি পশ্চিমা টিকার তুলনায় অনেক সস্তা। ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার দাম পড়বে প্রতি ডোজ প্রায় ১৫.৫ ইউরো। অ্যাস্ট্রাজেনেকা উত্পাদিত ভ্যাকসিন ইউরোপে বিক্রি হবে প্রতি ডোজ ২.৫ ইউরো।
রাশিয়ার টিকার দামের ঘোষণাটি এলো যখন দেশটি এই টিকার উৎপাদন বাড়ানোর জন্য পদক্ষেপ শুরু করেছে।
রাশিয়ার আরডিআইএফ সম্পদ তহবিলের প্রধান কিরিল দিমিত্রিভ বলেন, মস্কো এবং তার বিদেশি অংশীদারদের এক বিলিয়নের বেশি ডোজ টিকা উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে ৫০০ মিলিয়নেরও বেশি লোককে টিকা দেওয়া হবে।
দিমিত্রিভ রয়টার্সকে বলেন, মস্কো এই টিকার দাম আরও কমানোর চেষ্টা করছে যাতে সারা বিশ্বের লোক সহজে টিকা পায়।
মঙ্গলবার নিজেদের টিকা ৯৫ শতাংশেরও বেশি কার্যকর বলে দাবি করেছে রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। স্পুটনিক-৫ টিকার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানও এ দাবি করেছে।
যেখানে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকা ৭০ শতাংশ আবার সঠিক নিয়মে ডোজ প্রয়োগে ৯০ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করেছে প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রেজেনেকা।
এছাড়া মার্কিন ওষুধ প্রস্তুতকারী কোম্পানি ফাইজার ও এর জার্মান পার্টনার বায়োএনটেক দাবি করেছে নিজেদের টিকা ৯৫ শতাংশ কার্যকর। আবার আরেক মার্কিন কোম্পানি মডার্নার দাবি, তাদের টিকা ৯৪ দশমিক ৫ শতাংশ কার্যকর।
Loading...
Share via
Copy link
Powered by Social Snap