সাংবাদিক কনক সরওয়ারের ইউটিউব কন্টেন্ট বন্ধ, কর্নেল অলির বই বাজেয়াপ্তের নির্দেশ

নিউজ ডেস্ক:

সাংবাদিক কনক সরওয়ারের ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুকে থাকা দেশবিরোধী কন্টেন্ট বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। মঙ্গলবার বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সচিব ও বিটিআরসি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের এই নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলেছেন আদালত। একইসঙ্গে, জিয়াউর রহমানকে স্বাধীন বাংলাদেশের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি হিসেবে উল্লেখ করে ইতিহাস বিকৃত করে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রমের লেখা বই ‘রাষ্ট্র বিপ্লব সামরিক বাহিনীর সদস্যবৃন্দ এবং বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ’ বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। অপরদিকে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক। পরে  বিপুল বাগমার মানবজমিনকে বলেন, লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ বীরবিক্রমের এক সাক্ষাৎকার প্রচারের ঘটনায় বিদেশে থাকা সাংবাদিক কনক সরওয়ারের ইউটিউব ও ফেসবুক থেকে দেশবিরোধী কন্টেন্ট সরিয়ে ফেলতে নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও কনক সরওয়ার ইউটিউবে যেসব বিতর্কিত কন্টেন্ট দিয়েছে সেগুলোর ওপর রুল হয়েছে।

এগুলো নিষ্ক্রিয় বা বন্ধ করতে আদেশ দিয়েছেন। কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীরবিক্রমের লেখা বই ‘রাষ্ট্র বিপ্লব সামরিক বাহিনীর সদস্যবৃন্দ এবং বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ’ বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করেছেন।

গত ৭ই সেপ্টেম্বর জিয়াউর রহমানকে স্বাধীন বাংলাদেশের ‘অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি’ হিসেবে উল্লেখ করে ইতিহাস বিকৃত করেছেন অভিযোগ এনে লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ বীরবিক্রমকে আইনি নোটিশ দিয়েছিলেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ। ওই দিন ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ বলেন, অলি আহমেদ ১৭ই আগস্ট কনক সরওয়ারের ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে একটি সাক্ষাৎকার দেন। সেখানে তিনি দাবি করেন, জিয়াউর রহমান ‘প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি’। অথচ সংবিধানে বঙ্গবন্ধুকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলা হয়েছে এবং সৈয়দ নজরুল ইসলাম উপ-রাষ্ট্রপতি। স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত এটা নিয়ে কোনো কথা কেউ উত্থাপন করেননি। তাই এ বক্তব্য ইতিহাস বিকৃতি। এ কারণে নোটিশ দিয়েছি। অলি আহমেদ নোটিশের জবাব দিয়েছেন। তবে তিনি তার বক্তব্যে অনড় রয়েছেন। এরপর তার নোটিশের জবাব যুক্ত করে রিট করেছি।

সুত্র: মানবজমিন অনলাইন

Loading...
Share via
Copy link
Powered by Social Snap