মুজিববর্ষে বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ ভারতের স্মারক হাতঘড়ি

ডেস্ক রিপোর্ট:

ডায়ালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি ও স্বাক্ষর সংবলিত বিশেষ সংস্করণের হাতঘড়ি উন্মোচিত হয়েছে।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে বিশেষ সংস্করণের এই হাতঘড়ি উন্মোচন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবাদুল কাদের এবং ঢাকায় ভারতের হাই কমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী।

ভারতের নামী ঘড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টাইটান ভারতীয় হাই কমিশনের জন্য বিশেষ সংস্করণের ঘড়িগুলো তৈরি করেছে।

ওবাদুল কাদের বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে সরকার ব্যাপক কর্মসূচি নিয়েছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের জন্য জনস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে কর্মসূচি পুনবিন্যাস করা হয়েছে।

“বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক সময়ের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ। দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের রক্তের রাখি বন্ধনে আবদ্ধ। মুক্তিযুদ্ধে ভারত সরকার ও জনগণ আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। কাজেই আমাদের সম্পর্কটা অত্যন্ত নিবিড়।”

বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরা গান্ধির মধ্যে যে হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক ছিল তার ধারাবাহিকতায় দুই দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদিতে এসে তা ‘অধিক প্রমাণিত’ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন কাদের।

তিনি বলেন, “দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল ও ভবিষ্যৎমুখী নেতৃত্বে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক।”

মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ভারতীয় হাই কমিশনারের এই উদ্যোগের জন্য ভারত সরকার ও দেশটির জনগণকে ধন্যবাদ জানান ওবায়দুল কাদের।

“আমরা মনে করি বঙ্গবন্ধুকে সম্মানিত করা যে প্রয়াস তা প্রকৃতপক্ষে বাংলাদেশ ও জনগণকে সম্মান করা। আর এটি পারস্পরিক ও আঞ্চলিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে মাইলফলক হিসেবে বিবেচিত হবে।”

বঙ্গবন্ধুর সম্মানে ভারতীয় হাই কমিশন কর্তৃক তৈরি বিশেষ সংস্করণের দুটি ঘড়ি উপহার হিসাবে সেতুমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন ভারতীয় হাই কমিশনার।

হাই কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ভারতীয় হাই কমিশনারকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, “বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের জাতির পিতা হলেও তিনি ভারতীয় জনগণের কাছে বীর। এটাই স্বাভাবিক যে স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশে আসার পথে ভারতীয় জনগণ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমজনকে যে উষ্ণতা ও ভালবাসা দেখিয়েছিলেন তেমনিভাবে তারা মুজিবর্বষও উদযাপন করতে চান।”

বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২০২০ সালের ১৭ মার্চ মুজিবর্বষ উদযাপনের সূচনাকালে বঙ্গবন্ধুকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুকে সাহসী নেতা হিসাবে অভিহিত করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন যে, বঙ্গবন্ধুর জীবন সবার জন্য অনুপ্রেরণা ছিল।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধীতা করে হুমকি-ধামকি দেওয়া নিয়ে এক প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, “এ বিষয় নিয়ে আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এখন করোনা আক্রান্ত, হয়ত তিনি এখন সামনে আসবেন না। উনি হয়ত আপনাদের সঙ্গে কথা বলবেন বা উনার সাথে আপনারা আলাপ করতে পারেন।”

Loading...
Share via
Copy link
Powered by Social Snap