ব্রেক্সিট পর্ব শেষ – ব্রিটিশরা যে ৭ টি অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে !

  • ব্রিটিশরা আজ থেকে  ফ্রি মুভমেন্ট ও কাজের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবে ব্রিটিশরা । 

ব্রিটিশরা ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অবাধ চলাচল ও কাজ করার অধিকার হারাচ্ছে। ফলে একজন ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নাগরিক যত সহজে অন্য দেশে যেতে স্থায়ীভাবে কাজ ও চলাচল করতে পারবে সেটা এখন আর ব্রিটিশরা পারবে না । এখন থেকে একজন ব্রিটিশ নাগরিককে ইইউ অন্য কোন দেশে সেটেল হতে চাইলে ৩য় নাগরিকদের মত ভিসা , ইমিগ্রেশনের প্রসিডিউরের মধ্য দিয়ে যেতে হবে। শুধুমাত্র আয়ারল্যান্ড বাদে ব্যাকই সব কয়টি দেশে ব্রিটিশদের ভিসা নিয়ে প্রবেশ করতে হবে।

  •  ইউরোপিয়ান দেশগুলোতে ভ্রমণ করা আগের মত সহজ থাকছে না ব্রিটিশদের জন্য .

ব্রেক্সিটের ফলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ২৭ দেশের যে অবাধ যাতায়াত সেটা থাকছে না , ফলে আগের মত ব্রিটিশরা অবসর সময় কাটানোর জন্য যেমন ইচ্ছে সময় পার করতে পারবে না। ১৮০ দিনের মধ্যে ম্যাক্সিমাম ৯০ দিন তারা ইউরপিয়ন ইউনিয়নে থাকতে পারবেন এখন থেকে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেয়া হেলথ কার্ড এর সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে ব্রিটিশ নাগরিকেরা। ফলে ইউ দেশ গুলোতে মেডিক্যাল সেবা তাদের জন্য একটু বায়বহুল হতে যাচ্ছে।

  •  ব্রিটেন  ইরাস্মুস মবিলিটি প্রোগ্রামে অংশগ্রহণের সুযোগ হারাচ্ছে ! 

ব্রেক্সিটের ফলে ব্রিটেন ইরাস্মুসের সকল কিছুর অংশগ্রহণ থেকে বাদ পরতে  যাচ্ছে। ব্রিটিশ ছাত্র ছাত্রী এখন থেকে আর  ইউরোপিয়ান এর দেয়া ফান্ড ব্যবহার করে পড়াশুনা, কাজ, ট্রেনিং, ভলান্টিয়ারিং এর সুযোগ পাবে না।

  • ফ্রি মোবাইল রোমিং এর দিন শেষ ব্রিটিশদের জন্য। 

ব্রেক্সিটের ফলে ব্রিটিশ নাগরিকেরা ইউ অন্যান্য দেশের নাগরিকদের মত মোবাইল ডাটা , মোবাইল রোমিং বাবস্থা থেকে বঞ্চিত হতে যাচ্ছে। ফলে এখন থেকে ব্রিটিশরা তাদের মোবাইল নেট ইউজ করতে চাইলে বয়া কল রিসিভ করতে চাইলে গুনতে হবে রোমিং ফি। যদিও ব্রিটেনের ২-৩ টা মোবাইল নেটওয়ার্ক প্রভাইডার কোন প্রকার এক্সট্রা ফি চার্জ করবে না বয়া তাদের কোন প্লান নেই তা জানিয়েছে।

  • ড্রাইভিংয়ের ক্ষেত্রে এক্সট্রা ফর্মালিটি মেইন্তেইন করতে হবে। 

ব্রিটিশ লাইসেন্স দিয়ে ইউ দেশ সমূহে ব্রিটিশরা ড্রাইভিং করতে পারলে তাদেরকে এক্সট্রা কিছু ফর্মালিটিস অনুসরণ করতে হবে। তাদেরকে অবশ্যই  ইউকে লাইসেন্সের পাশাপাশি ইনস্যুরেন্স প্রভাইডার থেকে গ্রিন কার্ড গাড়িতে ঝুলারনুর জন্য এবং গ্রেইট ব্রিটেনের ট্যাগ লাগাতে হবে। এমনি এই আইন জিব্রাল্ট্রা, জার্সি, আইসলে অফ ম্যান এর জন্য প্রযোজ্য হবে। তাদের যদিও পেপার লাইসেন্স প্রদর্শন করতে হবে।

  • ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে ভোট দেয়ার অধিকার হারানো এবং পলিটিকাল ক্যান্ডিডেট হতে না পারা। 

ব্রিটিশরা অফিসিয়াল আর কোন প্রকার ইউরোপিয়ান ইলেকশনে ভোট কিংবা ক্যান্ডিডেট হতে পারবে না। ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে যাওয়ার কারণে তারা এই অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

  • অবাধ/মুক্ত  বাবসা বাণিজ্য বা  ফ্রি ট্রেড ইউনিয়ন থাকছে না থাকছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সাথে। 

যেহেতু ইউকে ইইউ সিঙ্গেল মার্কেট এবং ফ্রি ট্রেড ইউনিয়ন, কাস্টমস ইউনিয়ন থেকে ৩১ ডিসেম্বর বেরিয়ে গেছে সেহেতু তারা এখন আর আগের মত ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে ফ্রিতে প্রডাক্ট কেনাবেচা, ট্রেড করতে পারবে না। ফলে ব্রিটিশরা ইউ কোন পার্টনার এর সাথে যদি বিজনেস কন্টিনিউ করতে জায় তাহলে তাদেরকে এক্সট্রা পেপার ওয়ার্কের মধ্যে, কাস্টমস ক্লিয়ারেন্স, এবং এক্সট্রা কিছু ফি গুনতে হবে।

উপরোক্ত বিষয় ছিল মেইন পরিবর্তন ৩১ ডিসেম্বরের পর। ব্রিটিশরা আজ থেকে এই পরিবর্তন গুলোর মধ্য দিয়ে যাবে।

Loading...
Share via
Copy link
Powered by Social Snap