নগ্ন শরীর দেখাতে আজও কোনও দ্বিধা নেই টাইটানিক সিনেমার নায়িকা কেট উইন্সলেট-এর!

Share This:

Bangla Times News Desk:

Kate Winslet। তিনি বরাবরই সাহসী। সে টাইটানিক ছবির রোজ চরিত্রর জন্যেই হোক অথবা The Reader ছবির Hanna চরিত্র—নগ্ন শরীর দেখানোতে কখনওই কোনও অস্বস্তি বা কুন্ঠা ছিল না কেন উইন্সলেটের। সবেতেই তিনি সহজ, সাবলীল। তাঁর সাম্প্রতিকতম টেলিভিশন সিরিজ Mare of Easttown-এর জন্যে ফের নগ্ন হলেন নায়িকা। শুধু তাই নয়, পেটের মেদ কমাতেও কোনও আগ্রহ প্রকাশ করলেন না। বিদেশি সংবাদপত্র Gurdian-কে দেওয়া একটি সাক্ষাত্‍কারে অকপট কেট জানালেন, পরিচালক Craig Zobel তাঁকে অফার দিয়েছিলেন ক্যামেরা ও লাইটের কারিকুরি করে তাঁর পেটের বাড়তি মেদ কমিয়ে দেবেন। কিন্তু তাতে এক্কেবারে নারাজ নায়িকা। নিজের শরীর যেমন, ঠিক তেমনই তিনি দেখাতে চান দর্শককে। জানালেন, সিরিজটির প্রমোশনাল পোস্টার দু’বার ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। কারণ? তাঁর মনে হয়েছিল পেটের মেদ ফটোশপে কমিয়ে দেখানো হয়েছে। নিজের শরীর নিয়ে Kate Winslet এতটাই সাবলীল যে, পরিচালককে সাবধান করে দিয়েছিলেন কোনওরকম বদল করার থেকে।

এই টিভি সিরিজে মধ্যবয়স্ক ঠাকুমা Mare Sheehan-এ চরিত্রে দেখা যাবে। পেশায় আবার তিনি গোয়েন্দা। ৪৫ বছরের কেট আরও বলেন, ‘আমার স্বামীকে (Edward Abel Smith) জিজ্ঞাসা করেছিলাম, আমি যদি মধ্যবয়স্কা ঠাকুমার চরিত্রে অভিনয় করি, যিনি এখনও ওয়ান নাইট স্ট্যান্ডের অভ্যেস থেকে বেরোতে পারেননি, তাহলে কি ঠিক হবে? উত্তরে ও একটাই কথা বলেছিল—দারুণ হবে কেট!’ তবে তিনি এও বলেন, ভবিষ্যতে হয়তো আর এমন nude scene-এ তাঁকে দেখা যাবে না।

‘এই চরিত্রটি ভীষণই জীবন্ত। মানুষ রিলেট করতে পারবেন মধ্যবয়স্কা Mare-এর সঙ্গে। ওর জীবন এবং শরীরে অনেক খুঁত আছে। আর সবটা নিয়েই ওর অস্তিত্ব।’

‘এই চরিত্রটি ভীষণই জীবন্ত। মানুষ রিলেট করতে পারবেন মধ্যবয়স্কা Mare-এর সঙ্গে। ওর জীবন এবং শরীরে অনেক খুঁত আছে। আর সবটা নিয়েই ওর অস্তিত্ব।’

Loading...