আমি জনগণের, কোনো ব্যক্তি বা সমিতির নই: পপি

অনলাইন ডেস্ক:
করোনা আক্রান্ত হয়ে খুলনার খালিশপুরের নিজ বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পপি।

করোনার সঙ্গে যখন লড়াইয়ে ব্যস্ত পপি, তখনই তার কাছে উড়ে গেল চলচ্চিত্রশিল্পী সমিতির একটি চিঠি।

যেখানে জাতীয় গণমাধ্যমে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিকে নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য প্রদানের জন্য তাকে শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এমন চিঠি পেয়ে রোববার রাতে হতাশার কথা জানিয়ে দীর্ঘ ফেসবুক স্ট্যাটাস লিখেছেন পপি।

পপি লিখেছেন– যদিও আমি শারীরিকভাবে অসুস্থ এবং মানসিকভাবে হতাশ হওয়ার পরও চুপ থাকতে পারলাম না। আমি চলচ্চিত্র ও চলচ্চিত্রের মানুষকে শ্রদ্ধা করি এবং ভালোবাসি। আমি একজনকেই দালাল বলে আখ্যায়িত করেছি, বিষয়টি আমি এবং সে উভয়ই জানি। গোটা চলচ্চিত্রের সবাই জানে।

তিনি আরও লেখেন– অনেক শ্রম দিয়ে আজকে আমি পপি হয়েছি। আমার একক নামে বহু সুপার বাম্পারহিট মুভি ফিল্ম ইন্ড্রাস্টিকে উপহার দিয়েছি। ভালো কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ বহুবার রাষ্ট্রীয় পুরস্কার পেয়েছি। শ্রদ্ধেয় ফারুক, আলমগীর, কাঞ্চন, রুবেল, ডিপজল, মিশা, সোহেল রানা ভাইদের সঙ্গে আমি সৌভাগ্যক্রমে বহু ছবিতে কাজ করেছি।

তারা কি আমার মতো শিল্পীকে সদস্য পদ বাতিলের জন্য চিঠি দিতে বলেছেন?

এর পর পপি লেখেন– শ্রদ্ধেয় আনোয়ারা আন্টি, ববিতা আপা, শাবানা আপা, চম্পা, নতুন, রোজিনা আপুসহ মৌসুমী আপু, সানী, রিয়াজ, ফেরদৌস, শাকিব, অমিত হাসান, পূর্ণিমা, নিপুণ, মুক্তি, নিরব, সাইমন ও পপিসহ ১৮৪ জন জাহিদের বাতিলকৃত শিল্পী। আরও অনেক গুণী এবং পরীক্ষিত সম্মানিত সর্বজন স্বীকৃত বহুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শিল্পীরা কি চলচ্চিত্র থেকে চলে যাবে? শুধু একজনের নোংরামির কারণে? উনার পছন্দ-অপছন্দের কারণে?

উল্লেখ্য, ওই ব্যক্তি গত ৮-১০ বছরেও একটা সুপার হিট দূরে থাক, হিট মুভিও ইন্ডাস্ট্রিকে উপহার দিতে পারেননি। শিল্পী সমিতির মাত্র ৪০০ সদস্যের মন যে জয় করতে পারেননি, সে লাখো মানুষের মন জয় করবে কি দিয়ে?

পপি আরও লেখেন– চলচ্চিত্র শিল্পচর্চার জায়গা। মেধাবিকাশের জায়গা। ইতিহাস বলে, একজন শিল্পী বিভিন্ন পদে জায়গা করে নিতে পারে, তবে সবার পক্ষে একজন শিল্পী হয়ে ওঠা সম্ভব নয়। দর্শকের মন জয় করতে শ্রম ও ভালো কাজ তো লাগবেই। সে ক্ষেত্রে নেতা নয় অভিনেতা হতে হয়। শিল্প বা শিল্পীকে ধ্বংস না করে নিজের চরিত্র ঠিক করে শিল্পী হতে চেষ্টা করা উচিত। তবেই চলচ্চিত্রের মানুষ এবং দর্শকপ্রিয়তা পাওয়া যাবে। সর্বোপরি আমি বলতে চাই– আমি চলচ্চিত্রের পপি, আমি জনগণের পপি। কোনো ব্যক্তি বা সমিতির পপি নই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Share via
Copy link
Powered by Social Snap