আধুনিক ভবন হচ্ছে কুমিল্লা টাউন হলে

প্রকল্পের নকশার ডিজিটাল এনিমেশন উপস্থাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক: কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড়ে অবস্থিত টাউনহল ও বীরচন্দ্র নগর মিলনায়তনের পুরাতন ও জরাজীর্ণ ভবনের স্থানে আধুনিক বহতল ভবন নির্মাণ করা হবে। প্রস্তাবিত অত্যাধুনিক বহুতল ভবন নির্মানের লক্ষ্যে গতকাল অনুষ্ঠিত সুধী সমাবেশে প্রকল্পের নকশার ডিজিটাল এনিমেশন উপস্থাপন করা হয়।
বুধবার দুপুরে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় ডিজিটাল এনিমেশন দেখে সকলে মতামত ব্যক্ত করেন। বর্তমান সময়ের চাহিদা অনুযায়ী আধুনিক টাউনহল তৈরী করার জন্য মতামত দেন বক্তারা।
তাঁদের অনেকেই বলেন, বর্তমান স্থাপনাটি একেবারেই ব্যবহারের অনুপযুগী, বৃষ্টি হলেই পানি পড়ে, বসার স্থান নেই, মানসম্পন্ন আচার-অনুষ্ঠান, সমাবেশ ও জনসাধারনের প্রয়োজনে বর্তমান টাউন হল ব্যবহার করা যায় না। সাংস্কৃতিক কর্মীদেরও কর্মকান্ড করার স্থান নেই, নেই ভালো মঞ্চ। বক্তারা এরকম আধুনিক ভবন নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহরকে ধন্যবাদ জানান।
এ ভবনে থাকবে বহুতল বিশিষ্ট পাঠাগার, একাধীক মিলনায়তন, দৃষ্টিনন্দন মুক্ত মঞ্চ মহড়া কক্ষ, ড্রেসিং কক্ষ, ভিআইপি লাউঞ্জ, অতিথি কক্ষ, দ্বিতল গাড়ি পাকিং, জনসাধারণের প্রবেশ ও বাহিরের প্রশস্থ রাস্তা, ক্যান্টিন এবং টাউন হলে অবস্থিত শহীদ মিনারটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আকর্ষণীয় করে তৈরি করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। কুমিল্লা টাউনহল মাঠটিকে সংরক্ষণ করেই প্লান ও ডিজিটাল এনিমেশনে দেখানো হয়েছে। সবকিছুতেই একটা আধুনিকতার ছোঁয়া থাকবে। এখানে পূর্ব ও পশ্চিম থেকেও টাউনহলের সৌন্দর্য্য উপভোগ করা যাবে।
এ প্রকল্পের উদ্যোক্তা সভার প্রধান অতিথি মহানগর আওয়ামীলীগ সভাপতি সদর আসনের সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার বলেন, দীর্ঘ বছর ধরে কাজ করে টাউন হল প্রকল্পের আজ একটি ডিজিটাল এনিমেশন আপনাদের সামনে তুলে ধরা হয়েছে। এটি কুমিল্লার জন্য অত্যন্ত গৌরবের। এমপি বাহার বলেন, আপনারা আমাকে সহযোগিতা করলে দ্রুত এ প্রকল্পের কাজ এগিয়ে নেওয়া যাবে।
জেলা প্রশাসক মোঃ আবুল ফজল মীরের সভাপতিত্বে সুধী সমাবেশে কুমিল্লা বীর চন্দ্র গণ পাঠাগার ও নগর মিলনায়তন টাউন হলে প্রস্তাবিত অত্যাধুনিক বহুতল ভবন নির্মানের লক্ষ্যে প্রকল্পের নকশার ডিজিটাল এনিমেশন উপস্থাপন করেন বুয়েট এর আর্কিটেক্ট দেশের বিশিষ্ট স্থাপত্যবিদ মোঃ আসিফুর রহমান ভূইয়া।
এসময় উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কু, পিডব্লিউডি এর সাবেক প্রকৌশলী শাহাদৎ হোসেন, কুমিল্লার পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামসহ কুমিল্লার সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও বিভিন্ন পেশজীবী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Share via
Copy link
Powered by Social Snap