অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী কবি বি এম হায়দারের কবিতা “জীবনটা শুভঙ্করের ফাঁকি”

জীবনটা শুভঙ্করের ফাঁকি
-বি. এম হায়দার

রবি ঠাকুরের–
আজি হতে শত বর্ষ পরে
কে তুমি পড়িছো বসিয়া
কবিতা খানি মোর–
এর মতো, এতো দিন পর
তুমি চাইছো পড়িতে,
আমার জীবন কবিতা খানি
আগ্রহ ভরে।

দিক ভ্রান্ত হয়ে
দিক বিদিক, পথে প্রান্তরে
পথ খুঁজে বেড়িয়েছি।

আজ যখন ক্লান্ত, শ্রান্ত,
গতিহীন হয়ে,
নিজের মাঝে সমাহীত হয়েছি,
কপাল কুন্ডলার মতো
জানতে চাইছো —
পথিক তুমি পথ হারিয়েছো?

নির্মলেন্দু গুনের—
মনের আয়নার পিছনের
পারদের মতো,
ঘসে ঘসে আমার স্মৃতি,
যে তুমি মুছে ফেলেছো,
সেই তুমি,
জীবনানন্দের, পাখীর নীড়ের
মতো, দুটি চোঁখ তুলে,
নাটোরের বনলতা সেন হয়ে,
জানতে চাইছো—
এতো দিন কোথায় ছিলে?

আজ আমি নির্বাক।
কবি নজরুলের মতো—
তোমাদের পানে চাহিয়া
আর জাগিবো না।

হায়রে নিঠুর বাস্তবতা,
যখন সময ছিলো
কেউ কাউকে বুঝিনি,
জানতে চাইনি,
কি আমাদের চাই।
আজ যখন বিধাতা,
জীবন, যৌবন,
সব কেড়ে নিলো।
বৃদ্ধ বয়সে এসে,
হাহাকার করে মরি।
কি হারালাম, কি পেলাম,
কি চাইনি, কি চেয়েছিলাম,
কি রয়ে গেলো বাকী?
কোন হিসাবই অাজ
মেলানো যাবে না,
সবই শুভঙ্করের ফাঁকি ।।

Loading...
Share via
Copy link
Powered by Social Snap